মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১০:২৫ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
পূবর্ধলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও সন্তান কমান্ডের কোটা ইস্যুতে মানববন্ধন গোলাপ মাহমুদ সৌরভ এর কবিতা অবেলা টাপুরটুপুর বৃষ্টি  কোটাবিরোধীদের আন্দোলন থামানো উচিত , ময়মনসিংহ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লেখক গবেষক আলী আহাম্মদ খান আইয়োব এর মাতার জানাযা সম্পন্ন কালীপুরের ইতিহাস, পর্ব-৪ : কালীপুরের ছোটতরফ জমিদারবাড়ির সমৃদ্ধ অতীত আর প্রয়োজন সংরক্ষণ টাকা আত্নসাত মামলায় নেত্রকোনায় মাদ্রাসার হিসাব রক্ষক গ্রেপ্তার ঃ কারাগারে প্রেরণ  পূর্বধলায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানদের বিদায় সংবধর্ণা, বরণ ও প্রথম সভা অনুষ্ঠিত  ময়মনসিংহ রেঞ্জের মাসিক অপরাধ সভায় শেষ্ঠ ওসি নেত্রকোনা মডেল থানার আবুল কালাম   টাকা দিলেই মেলে ইচ্ছেমত জখমি সনদ,দাবি ভূক্তভোগীদের;সম্মেলন পূর্বধলায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল অনূর্ধ্ব-১৭ টুর্নামেন্টের ফাইনালে পূর্বধলা একাদশ ট্রাইবেকারে জয়ী                

দীপাবলী ও ময়মনসিংহ সাহিত্য পরিষদ।

রিপোর্টারঃ
  • প্রকাশের সময় | বুধবার, ১৫ মার্চ, ২০২৩
  • ১৭১ বার পঠিত

প্রফেসর বিমল কান্তি দে

১৯৭৭-৭৮ সনের দিকে ময়মনসিংহে আমাদের মধ্যে সাহিত্য সংস্কৃতি বিষয়ক চর্চার একটি প্রবল আলোড়ন চলছিল। কেননা কেদারনাথ
মজুমদারের ময়মনসিংহের ইতিহাস বিবরণের পর এই প্রথম জেলার সাহিত্য সংস্কৃতি বিষয়ক প্রামাণ্য প্রবন্ধ নিয়ে প্রায় সাতশত পৃষ্ঠারম্যাগাজিন সাইজ প্রামাণ্য গ্রন্থ রচিত হয়। পরে আমরা জেনেছি যে এটি ছিল সারা বাংলাদেশে জেলা ভিত্তিক রচনার প্রথম প্রয়াস। এবং একথাও স্মরণীয় যে আলোচনার পরিধি ছিল
বৃহত্তর ময়মনসিংহজেলাঞ্চল। আমাদর নাটের গুরু ছিলেন প্রয়াত অধ্যাপক গোলাম সামদানী কোরায়শী। গৌরী সেনের ভূমিকা পালন করেন
জেলাবোর্ডের কর্ণধার শাকিরউদ্দিন আহমেদ।
স্বীকার করি একুশটি প্রবন্ধের মাধ্যমে সেটি ছিল সীমার মাঝে অসীমকে ধারণের প্রয়াস।
তালিকাভুক্ত বা ঘোষিত ছয়জন সম্পাদকের মধ্যে তিনজন ছিলেন নিষ্ক্রিয়। অবশিষ্ট তিনজন– গোলাম সামদানী কোরায়শী (প্রধান), আশুতোষ পাল এবং আমি কয়েকমাস ধরে দিনে রাত্রে সম্পাদনা ও প্রুফ দেখা সহ প্রকাশনার যাবতীয় কাজ করেছি।
সীসার টাইপে কম্পোজ, ট্রেডল মেশিনে ছাপার কাজ যে কত ঝকমারির, তা আজকের দিনের তরুণ সমাজ কল্পনাও করতে পারবেন না। প্রেস ম্যানেজার নুরুন্নবী ও মালিক, হেড প্রিন্টার মো কাসেম আলী সহ সবাই খুব যত্ন ও পরিশ্রম করে কাজটি সমাধা করেছিলেন।সময়টা ছিল যুদ্ধ বিধ্বস্ত বাংলাদেশের পুনর্গঠন পর্ব, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ
মুজিবুর রহমানকে নির্মমভাবে হত্যার পরবর্তীকালে জারিকৃত সামরিক শাসনের আমল।

এর কিছুদিনের মধ্যে কোরায়শী সাহেব সহ আমরা কয়েকজন তিনটি ধারায় কর্মকল্পনারছক তৈরি করি- ১।পরবর্তী গ্রন্থ “ময়মনসিংহের
জীবন ও জীবিকা গ্রন্থের নামকরণ ও বিষয়সূচী প্রণয়ন,২। একটি নতুনসাহিত্য সংগঠন সৃজন ও ৩। কেদার নাথ বা চন্দ্রাবতীর নামে সাহিত্য পুরস্কার প্রবর্তন। এর মধ্যে প্রথম ও তৃতীয়টি কিছুটা সময়সাপেক্ষ বলে বিবেচিত
হওয়ায় আমরা দ্বিতীয়টির কাজে মনোযোগ দিই। সংগঠনের ভিত্তি মজবুত করার উদ্দেশ্যে আমরা প্রস্তাবিত সংগঠনের জন্য একটি গঠনতন্ত্র রচনার সিদ্ধান্ত নিই। একাজের দায়িত্ব অধ্যাপক বসীর উদ্দীন ও আমার উপর প্রদান করা হয়। এ ধরণের কাজে বসীর সাহেব সত্যই খুব উপযুক্ত ছিলেন। গঠনতন্ত্রের উপসংহারটি তার বহুমুখী সচেতনতার পরিচয় বহন করে।আমি মুকুল ফৌজের নানা বিধিমালা লিখতে লিখতে অনেক কিছু রপ্ত করেছিলাম।

সাহিত্য সংগঠনের নামকরণ করা হয় ময়মনসিংহ সাহিত্য পরিষদ। এর পরিধি জেলার বাইরে পর্যন্ত সম্প্রসারিত ছিল। প্রথম দফায় একেবারে নবীনদের সদস্য হিসাবে গ্রহণ না করে সাংগঠনিক কাঠামো কিছুটা দৃঢ় হলে বছর খানেক পর তাদের অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত হয়। তাতে আমাদের প্রথমিক সদস্য সংখ্যা সম্ভবত ষাট সত্তর জন হয়ে গিয়েছিল। অধ্যাপক গোলাম সামদানী কোরায়শী সভাপতি মনোনীত হন। আমরা অধ্যাপক বসীর উদ্দীনকে সম্পাদক মনোনীত করলেও তিনি সেই পদে আমাকে বসিয়ে দেন। এটা ছিলআমার প্রতি তার সমর্থন ও আস্থার প্রকাশ।

সাহিত্য পরিষদের কাজ পুরোদমে অগ্রসর হয়। আমরা লিখিত দৃষ্টান্ত হিসেবে একটি সাময়িকী প্রকাশের সিদ্ধান্ত নিই। সামদানী সাহেব এর নামকরণ করেন দীপাবলী। যুগল তালুকদারের মননে ও কর্মে কাঠের ব্লকটি তৈরি হয়েছিল। সংক্ষিপ্ত পরিচয় হলো—

দীপাবলী—- অনিয়মিত সাহিত্য সঙ্কলন
প্রযোজনা– ময়মনসিংহ সাহিত্য পরিষদ
সম্পাদনা — বিমল কান্তি দে
প্রকাশক– পরিষদের পক্ষে আশুতোষ পাল।
প্রকাশকাল ১৯৭৯ খ্রিস্টাব্দ অনুযায়ী ১৩৮৬ বঙ্গাব্দ
পৃষ্ঠাসংখ্যা ১০৬। সৌজন্য বিনিময় – চারটাকা।
মুদ্রক— জমান প্রিন্টার্স, ময়মনসিংহ।

পঁয়তাল্লিশ বছর আগের কথা। লেখকদের অধিকাংশ প্রয়াত হয়েছেন। তবু তাদের স্মরণে, তাদের প্রতি শ্রদ্ধা বোধে আমি সূচিপত্রটি তুলে ধরছি।
প্রবন্ধ–
শেখ আবদুল জলিল– বাংলা ভাষা ও সাহিত্য-
বাঙালির জীবন সংগ্রামের হাতিয়ার।
মোহামমদ আজিম উদদীন– রবীন্দ্রকাব্যে নতুনের প্রেক্ষিত ও নববর্ষ -প্রীতি।
সুধাংশুমোহন দাস– প্রাক চৈতন্য বাংলার বৈষ্ণব ধর্ম ও দর্শন।
আহমদ তৌফিক চৌধুরী– বাংলা সন- তারিখ ও প্রসঙ্গ কথা।
আশুতোষ পাল– মেঘদূত: চিরায়ত বিরহকাব্য।
দরজি আবদুল ওয়াহাব– ঈশাখাঁর রাজধানী ও অন্যান্য প্রসঙ্গ
যতীন সরকার — ম্যাক্সিম গোর্কী ও আমরা।
গোলাম সামদানী কোরায়শী– অসাম্প্রদায়িক ঐতিহ্য – চেতনায় নজরুল।
সাইফুল ইসলাম — রাজনীতির শিকারে সাহিত্য।

কবিতা

নুরুল হক— প্রবাহেই মুক্তি থাকে।
প্রণব চৌধুরী– শেষ উদ্ধার ‘৭১।
নুরুল ইসলাম মানিক — আমার জনক যে পথে গেছে।
মিসেস আফরোজ হায়দার খান — এসো শুভ নববর্ষ।
সৈয়দা সুরাইয়া হক — নববর্ষে।
মৃণাল সান্যাল— আমি সমুদ্র দেখিনি।

ছোটগল্প

মিসেস হেলেনা খান— গ্রাস।
হারূণ- অর- রশীদ — জাহান্নামের সিঁড়ি।
বিমলকান্তিদে — দিগন্তে রঙিন মেঘ।

নয়টি প্রবন্ধ, ছয়টি কবিতা ও তিনটি ছোট গল্পের সম্ভারে সাজানো হয় ম্যাগাজিনটি।
এগুলির মধ্যে কয়েকটির শীর্ষনাম থেকেও
বিষয়বস্তুর গতিপ্রকৃতি সম্পর্কে ধারণা করা যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সূচী

সেহরির শেষ সময় - ভোর ৩:৫২ পূর্বাহ্ণ
ইফতার শুরু - সন্ধ্যা ১৮:৫৩ অপরাহ্ণ
  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৫৭ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০৮ অপরাহ্ণ
  • ১৬:৪৩ অপরাহ্ণ
  • ১৮:৫৩ অপরাহ্ণ
  • ২০:১৭ অপরাহ্ণ
  • ৫:১৯ পূর্বাহ্ণ

©২০২০ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | দৈনিক আমার সমাচার

কারিগরি সহযোগিতায়- আমার সমাচার আইটি সেল
themesba-lates1749691102